about-boier-feriwala-বইয়ের-ফেরিওয়ালা-বইয়ের-সাথে-সুন্দরের-পথে

আমাদের সম্পর্কে

বইয়ের ফেরিওয়ালাতে উপন্যাসপাঠ, গল্পপাঠ, প্রবন্ধ পাঠ, কবিতা আবৃত্তি, ছড়াপাঠ, বিভিন্ন মনীষীদের আত্মজীবনীপাঠ, সাহিত্যিক পরিচিতিপাঠ, এবং বইয়ের রিভিউ করা হয়ে থাকে। বইপাঠের গুরুত্ব সবার কাছে যেন পৌঁছে যায় সেই লক্ষ্যে আমরা কাজ শুরু করেছি ‘বইয়ের ফেরিওয়ালা‘ ইউটিউব চ্যানেলের। “বইয়ের সাথে, সুন্দরের পথে” স্লোগানে সবার হাতে বই পৌঁছে দিতে চাই আমরা। ছাত্র-ছাত্রীরা যেন বইপাঠে আগ্রহী হয় সেজন্য বিভিন্ন আয়োজন করে থাকি আমরা। একজন পাঠক কেন বই পড়ে? কোন ধরনের বই পড়তে পছন্দ করে? এবং বর্তমান সময়ে বই পড়ার গুরুত্ব আছে কিনা? ‘Book Tube‘ আমাদের দেশে পরিচিত নয় কিন্তু বেশকিছু দেশে এই ‘Book Tube’ জনপ্রিয়। আমাদের তরুণ প্রজন্ম ফেসবুকের পাশাপাশি ইউটিউবে বেশ সময় ব্যয় করে। কিন্তু বই নিয়ে এত আয়োজনা হাতের কাছে পায় না বলেই হয়ত অন্যকিছু দেখে সময় নষ্ট করে। আমরা মনে করলাম ফেসবুকের পাশাপাশি আমরা ইউটিউবেও বইয়ের প্রচার করব। সেই লক্ষ্যে আমরা ইউটিউবে কাজ করছি।

লক্ষ্য অর্জনে কাজ: আমরা বর্তমানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের ৮টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘বইয়ের ফেরিওয়ালা‘র কার্যক্রম শুরু করেছি। যেখানে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা সদস্য হওয়ার ঝামেলা ছাড়া এবং কোনোপ্রকার ফি দেওয়া ছাড়াই তাদের চাহিদামত বই পেয়ে থাকে। এছাড়াও বইপাঠ প্রতিযোগিতা, চিঠি উৎসব, বুক রিভিউ এবং পাঠচক্রের আয়োজন করে থাকে। তাছাড়া ‘ইউটিউব’ এ বইপাঠে আগ্রহী করতে ‘বইয়ের ফেরিওয়ালা‘ নামে একটি চ্যানেল আছে। চ্যানেলে বুক রিভিউ, গল্পপাঠ, কবিতা, উপন্যাসপাঠ ইত্যাদি অাছে।

আমাদের প্রতিশ্রুতি: আমরা চাই বাংলাদেশের প্রত্যেকটি ছাত্র-ছাত্রীদের হাতে বই পৌঁছে দিতে। রাষ্ট্রের সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে। প্রত্যেককে জ্ঞানচর্চায় আগ্রহী করে তুলতে চাই আমরা। বাংলাদেশের প্রত্যেক মানুষের হাতে আমাদের সেবা পৌঁছে যাবে এই আমাদের প্রতিশ্রুতি। মেধা ও মননে অগ্রগণ্য পাঠক সমাজ গড়ে তুলতে কাজ করে যাবে ‘বইয়ের ফেরিওয়ালা‘।

বইয়ের ফেরিওয়ালায় লিখতে চাইলে এইখানে লেখা জমা দিন

বইয়ের ফেরিওয়ালা থেকে বই ধার করতে সদস্য হোন