একটু উষ্ণতার জন্য PDF রিভিউ বুদ্ধদেব গুহ | Ektu Ushnotar Jonno Summary

একটু উষ্ণতার জন্য pdf

ব‌ইয়ের নামঃ একটু উষ্ণতার জন্য
লেখকঃ বুদ্ধদেব গুহ।
প্রকাশনীঃ আনন্দ পাবলিশার্স প্রাইভেট লিমিটেড।
মূল্যঃ 360 টাকা।

“মেঘের কোলে রোদ হেসেছে, বাদল গেছে টুঁটি,
আজ আমাদের ছুটিও ভাই, আজ আমাদের ছুটি।”

অনেকে কল কারখানার ধোয়ার গন্ধে অতিষ্ঠ হয়ে ছুটি চায়। আবার কেউ বা আতড়ের কারখানার মিষ্টি গন্ধ থেকেও ছুটি চায়! রাজ প্রাসাদে থেকেও অনেকে শান্তি খুঁজে বেড়ায়! দিন মজুর হয়েও অনেকে শান্তিতে আছে! শান্তি না পেয়ে এই পৃথিবীতে থাকার ইচ্ছাটা শেষ হয়ে যাওয়া অনেক মানুষ ছুটি চায় নিজ থেকেই! ছুটি কি পায়? নাকি ছুটি চাওয়াতেই অধিক তীব্র যন্ত্রণা? লেখকের পুরো আয়োজন ‘ছুটি’কে নিয়েই! আজ আপনাদের বলব, ছুটি চাওয়া এক লেখকের গল্প।

মিঃ সুকুমার বোস। আমরা উনাকে ‘সুকু’ বলেই জানব। আগে ছিল উকিল। যার ডায়লগ শুনে ঢোক গিলতে হত বিপক্ষ দলের উকিল পর্যন্ত! সেই কলকাতার বিখ্যাত উকিল সুকু আজ বন পাহাড়ের পাদদেশে নির্জনতায় দিন কাটাচ্ছে! কেন? কারণ, তার এমন এক রোগ হয়েছে, যা সহ্য করতে না পেরে পৃথিবী থেকে ‘ছুটি’ চায় সে! তার কাছেই হঠাৎ এক চিঠি আসল। চিঠি মারফত জানতে পারল যে, ‘ছুটি’ আসছে। একটি মেয়ের নাম ছুটি। মেয়েটি লেখক বোসের অনেক বড় ভক্ত। লেখক পাগল পাঠিকা যাকে বলে সেই হচ্ছে ‘ছুটি’।

আরও পড়ুনঃ কোয়েলের কাছে PDF রিভিউ বুদ্ধদেব গুহ

সুকুর স্ত্রী রমা। ইংল্যান্ড থেকে ব্যারিস্টারি পড়তে গিয়েই পরিচয় রমার সাথে। প্রেম করে বিয়ে করে ফেললেন সুকু। কিন্তু কিছুকাল পর রমা আর সুকু কিছুতেই একে অপরের বুঝে উঠতে পারছে না! যখনি তাদের সংসারে চলছে ঘোর অশান্তি ঠিক তখনি আসল এই ‘ছুটি’। এখন বন পাহাড়ের পাদদেশে সুকুর নির্জন বাড়িতে আসল ছুটি। এসেই সেবা করা শুরু করল সুকুর। যেন এই জনমে সুকু ছাড়া আর কাউকেই সে চিনে না! কি এক অপূর্ব প্রেম! ভালো লাগার মানুষ পাশে পেয়ে সুকু আস্তে আস্তে ভালো হয়ে উঠছে। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে ‘রমা’। সুকুর স্ত্রী রমা’ যদি তাকে ডিভোর্স না দেয় তাহলে সে কিভাবে ছুটিকে চির জীবনের জন্য আপন করে নিবে?

সুকুর বাড়ির পাশেই লাবু নামক এক কিশোর থাকে, পরিবার নিয়ে। লাবুর সাথে সখ্যতা গড়ে উঠল সুকুর। লাবুর সাথে ঘুরতে গিয়ে সুকু যেই রাজ্য দেখল তা সে কোনো দিন শুনেনি আর পড়েও নি রূপকথার কোনো ব‌ইয়ে! কি এক অপূর্ব রাজ্যের রাজা লাবু! পাশেই আছে মিস্টার বোয়েলসের বাড়ি। ভদ্রলোক একা থাকে প্রায় ত্রিশ বছর। কিন্তু এখনো বেঁচে আছেন জীবনকে ভালোবাসেন বলেই! মিস্টার বোয়েলসের জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত ঘটা ঘটনা পড়ে যে কোনো পাঠকের চোখ ছলছল করে উঠবে অজান্তেই! আর স্টেশনের টিকেট কাটা কর্মচারী শৈলেন আর নয়নতারা নামক এক বরিশালী মেয়ের যে অভূতপূর্ব প্রেমের কাহিনী গল্পে ফুটে উঠেছে তা আজকালকার ছেলেমেয়েরা যারা ভালোবাসা নিয়ে খেলা করে তাদের জন্য শিক্ষা শিক্ষার এক সুবর্ণ সুযোগ! চাইলেই কেহ শৈলেন হতে পারে না! কিন্তু শৈলেন কি এমন করেছে? যা আজও পাঠকের নিকট দৃষ্টান্ত হয়ে আছে! আর কিশোর লাবু যেভাবে গল্প থেকে হঠাৎ বিদায় নিল তার রাজ্য ফেলে, সেটা কোনো পাঠক ঘুর্নাক্ষরেও কল্পনা করতে পারেন নি! এভাবেই কি সবাই পালিয়ে যায়? পালিয়ে গেলেই কি ছুটি?

সুকুর স্ত্রী রমা হঠাৎ কি বুজে যেন সুকুর নির্জন বাড়িতে এসে উপস্থিত! বলা নেই কওয়া নেই! এটা কি ঝড়ের পূর্বাভাস? নাকি মিলনের আগ্রহ? ছুটি আর সুকুর দেওয়া চিঠি পড়ে পাঠক যখন বুঝতে পারবেন যে, সুকু আর ছুটির প্রেমের অপরিমিত গভীরতা ঠিক তখনি টনক নড়ে উঠবে পাঠকের! লেখক বোধহয় পাঠকের শেষ পর্যন্ত পড়ার উৎসাহ দিতেই এই কান্ড ঘটালেন। অবিবাহিত কোমল মনের অপূর্ব সুন্দরী ছুটির এখন কি হবে? রমা যদি এখন সুকুর সাথে মিলিত হয় তাহলে ছুটি কার কাছে যাবে? নিজের সমস্ত কিছু বিসর্জন দিয়ে ছুটি যেই ভালোবাসা বুনল শীতের সোয়েটারের মতো সেই সোয়েটার কি বোনার আগেই ছিড়ে যাবে? নাকি রমা কে ফেলে প্রেমের সাগরে ডুবে যাওয়া ছুটিকে টেনে তীরে তুলতে এগিয়ে আসবে সুকু? অসম্ভব রকমের এক ঘোরের মধ্যে পাঠক! যেন টি-টুয়েন্টির সুপার ওভার চলছে! কি হবে সামনে? সকল পাঠক তাকিয়ে লেখকের কলম চলার ধীর গতিতে! আর উষ্ণতা? সে তো পাঠক গল্পে শুরু কিছুকাল পর থেকেই পেতে শুরু করবেন। যেন ছুটিই সাথে করে উষ্ণতা নিয়ে এসেছে পাঠকের জন্য!

আরও পড়ুনঃ হাজারদুয়ারী বুদ্ধদেব গুহ PDF রিভিউ

কিছু কথাঃ

পুরো গল্পতে ছিল টানটান উত্তেজনা! জোৎস্না রাতের চাঁদের আলোয় কবরস্থান থেকে ভেসে আসা আওয়াজের মতো কম্পিত ব‌ইয়ের পাতা! লাবুর অভূতপূর্ব রাজ্য হয়তো কোনো পাঠক দেখেনি কখনো, ঠিক আমার‌ই মতো! মিস্টার বোয়েলসের কুকুরের ঘেউ ঘেউ করে ডেকে উঠার সাথে যেই করুন স্বর! সেই স্বর শুনে হয়তো শুকিয়ে যাবে চোখের জল! পাহাড়ের মাঝে আকাবাকা রাস্তায় যেন হেটে চলছি আমি। পুরোটা গল্পে আমি যেন লেখক সুকুর কলম!

বারবার হারিয়ে গিয়েছি হলুদ ফুল দিয়ে সাজানো ক্ষেতের মধ্যখানে, সুকু আর ছুটির সাথে! শৈলেনের মতো আমারও ইচ্ছা জেগেছে, নয়নতারার মতো কাউকে কিছু দেখাবার! আর রমা?

আরও পড়ুনঃ মাধুকরী উপন্যাস রিভিউ PDF বুদ্ধদেব গুহ

রমার প্রতিটি আগমনে চমকের সাথে, দোলতে দোলতেই গল্পের শেষ পর্যন্ত পৌঁছেছি। গল্পের প্রতিটি পাতা পাঠ করে আমারও মন চেয়েছে সুকুর মতো নির্জনতায় হারিয়ে প্রকৃতিকে একান্ত আপন করে পাওয়ার! আমার মতো আপনিও হাটতে পারবেন, লেখক সুকু আর কিশোর লাবুর পাহাড়ী আকাবাকা রাস্তায়! অনেকে হতে চাইবেন, লাবুর অবিস্মরণীয় রাজ্যের প্রজা।

আপনাকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি এই চমৎকার বইটি পড়ার জন্য। একটু উষ্ণতার জন্য পড়ার পর হয়তো আপনি একরাশ সুখের সঙ্গে উচ্চারণ করবেন নিজের অজান্তেই যে, “ইশশশ! আগে কেনো পড়লাম নাহ?” কথা দিচ্ছি, আমার মতো আপনিও মুগ্ধ হবেন।

আরও পড়ুনঃ ঋজুদা সমগ্র PDF রিভিউ বুদ্ধদেব গুহ

প্রিয় উক্তিঃ

“এ জায়গাটায় সকাল হয় না, সকাল আসে। অনেক শিশিরঝরানাে ঘাসে_ভেজা পাহাড়ি পথ মাড়িয়ে অনেক শখিনী নদী পেরিয়ে সােনা-গলানাে পােশাক পরে সকাল আসে এখানে।”

লিখেছেনঃ Mohammad Abu Sayed

বইঃ একটু উষ্ণতার জন্য [ Download PDF ]
লেখকঃ বুদ্ধদেব গুহ

ইউটিউবে বইয়ের ফেরিওয়ালার বুক রিভিউ পেতে সাবস্ক্রাইব করুন

বুদ্ধদেব গুহ রচনা সমগ্র পিডিএফ ডাউনলোড করুন

Facebook Comments

Leave a Reply